Home » ছোট্ট ক্যালাহানের হাসির দোকান

ছোট্ট ক্যালাহানের হাসির দোকান

by newsking24


করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে পুরো বিশ্ব এখন ঘরবন্দী। তবু জরুরি প্রয়োজনে কিছু মানুষকে বের হতে হচ্ছে। কানাডার ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার স্যানিচ শহরও এর ব্যতিক্রম না। সেই শহরের প্যানরিন স্ট্রিটে জরুরি প্রয়োজনে বের হওয়া সবাই মুখোমুখি হচ্ছে দারুণ এক অভিজ্ঞতার। ছয় বছর বয়সী ক্যালাহান ম্যাকলাফলিন স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শোনাচ্ছে মজার মজার কৌতুক। হাসি ফোটাচ্ছে মানুষের মুখে।

ক্যালাহান এ বছর গ্রীষ্মকালের অপেক্ষা করছিল। তাপমাত্রা বেড়ে গেলে রাস্তার পাশে লেমোনেড বিক্রি করার পরিকল্পনা তার। সে জন্যই গরমের অপেক্ষা। তবে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছোট্ট ক্যালাহানকে নতুন করে ভাবিয়েছে। লেমোনেড বিক্রির পরিকল্পনা বাতিল করে সে চালু করেছে ‘জোক স্ট্যান্ড’। কৌতুক শোনানোর এ দোকানের নাম ‘ড্রাইভ বাই ওয়াক বাই জোক স্ট্যান্ড’। মহামারির এ সময় ঘরে বসে না কাটিয়ে ক্যালাহান প্রতিদিন সবার সঙ্গে আনন্দ ভাগ করে নিচ্ছে।

ক্যালাহানের ‘ড্রাইভ বাই ওয়াক বাই জোকস স্ট্যান্ড’

ছয় মাস আগে ক্যালাহানকে মা একটি কৌতুকের বই কিনে দেন। বইয়ের কৌতুকগুলো পড়া শেষে ক্যালাহান মা–বাবাকে কৌতুক শোনাত। তবে একসময় তার ধারণা হয়, দারুণ এ কৌতুকগুলো সবাইকে শোনানো দরকার, এ দুঃসময়ে সবার মুখে যেন হাসি ফোটে। 

জোক স্ট্যান্ড গোছাচ্ছে ক্যালাহান

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর পর্যন্ত দোকানে থাকে ক্যালাহান। এরপর বাড়ি ফিরে খাওয়া ও বিশ্রাম শেষে আবার সন্ধ্যায় ফিরে আসে।

সবাইকে বিনা মূল্যে কৌতুক শোনায় ক্যালাহান। সে চায়, সবাই যেন অর্থ সঞ্চয় করে এ সময় খাদ্যদ্রব্যের মতো প্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে পারে।

পথচারীদের কৌতুক শোনাচ্ছে ক্যালাহান

পথচারী ও প্রতিবেশীরা কৌতুক শুনে ক্যালাহানকে হাত নেড়ে ধন্যবাদ জানায়। কেউ কেউ নতুন কৌতুক শুনিয়ে যায়। ক্যালাহানের দোকানটি ক্যাডবেরো সৈকতের কাছাকাছি থাকায় অনেক মানুষ তার কৌতুক শুনতে আসে। 

টুইটারে জোক স্ট্যান্ডের ভিডিও দেখে হলিউডের ডেডপুলখ্যাত অভিনেতা রায়ান রেনল্ড তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টে ক্যালাহানের এ উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন।

ছোট্ট ক্যালাহান জানায়, পৃথিবীতে অনেক সমস্যা আছে। কিন্তু সে সব সময় মানুষের মুখে হাসি দেখতে চায়। তার কৌতুকগুলো দিয়ে সে মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে চায়। 

ক্যালাহানের ইচ্ছা পূরণ হোক। পৃথিবী হোক শান্তির, পৃথিবী হোক সুন্দর।

 

তথ্যসূত্র: গুড নিউজ নেটওয়ার্ক

ছবি: সিবিসি ও স্টোরি পিক

(function(d, s, id) {
var js, fjs = d.getElementsByTagName(s)[0];
if (d.getElementById(id)) return;
js = d.createElement(s); js.id = id;
js.src = “http://connect.facebook.net/en_US/sdk.js#xfbml=1&version=v2.7&appId=1499138263726489”;
fjs.parentNode.insertBefore(js, fjs);
}(document, ‘script’, ‘facebook-jssdk’));



Source link

Related Articles

Leave a Reply

Select Language »
%d bloggers like this: